করোনায় কোন বয়সীদের মৃত্যু বেশি

বাংলাদেশ

দেশে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে সংক্রমণের হার ঊর্ধ্বগতিতে রয়েছে।  এ অবস্থায় চলমান লকডাউন আগামী ১৪ জুলাই পর্যন্ত বাড়িয়েছে সরকার। দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় ২০১ মারা গেছেন। এ নিয়ে বুধবার পর্যন্ত সারা দেশে মোট ১৫ হাজার ৫৯৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। 

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্যানুযায়ী, মৃতদের ৮০ শতাংশের বয়স পঞ্চাশোর্ধ্ব। সবচেয়ে বেশিসংখ্যক প্রায় ৫৬ শতাংশের বয়স ৬০ থেকে ১০০ বছরের বেশি।  আর ২৪ শতাংশ ৫০ থেকে ৬০ বছর বয়সী।

মোট মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা গেছে, শূন্য থেকে ১০ বছর বয়সী ৫২ জন (শূন্য দশমিক ৩৩ শতাংশ), ১১ থেকে ২০ বছর বয়সী ৯৯ জন (শূন্য দশমিক ৬৩ শতাংশ), ২১ থেকে ৩০ বছর বয়সী ৩০১ জন (১ দশমিক ৯৩ শতাংশ), ৩১ থেকে ৪০ বছর বয়সী ৮৬৭ জন (৫ দশমিক ৫৬ শতাংশ), ৪১ থেকে ৫০ বছর বয়সী ১ হাজার ৭৯৪ জন (১১ দশমিক ৫১ শতাংশ), ৫১ থেকে ৬০ বছর বয়সী ৩ হাজার ৭৬৮ জন (২৪ দশমিক ১৬ শতাংশ) এবং ৬০ বছরের ঊর্ধ্বে ৮ হাজার ৭১২জন (৫৫ দশমিক ৮৭ শতাংশ)।

গত বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। আর ১৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগী মারা যায়। সেই থেকে প্রতিদিন করোনায় মানুষ মারা যাচ্ছেন। মৃতদের মধ্যে মধ্যে পুরুষ ১১ হাজার ২ জন (৭০ দশমিক ৫৬ শতাংশ) ও নারী ৪ হাজার ৫৯১ জন (২৯ দশমিক ৪৪ শতাংশ)।
 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *